মসজিদ আল আকসা ইস্যুতে পিছু হটেছে ইসরাইলি হায়নার দলেরা।
পিছু না হটে যাবেই বা কোথায়, যেভাবে ফুঁসে উঠেছে আজ গোটা বিশ্বের মুসলমান।
কিন্তু মুসলমানদের নির্যাতনে বিশ্ব মুসলিম সম্প্রদায়ের প্রভাবশালী আজ যারা চুপ রয়েছে তাদের প্রতি অন্তর থেকে জানাই ঘৃণা ও ধিক্কার।
মহান আল্লাহ তায়ালার কাছে নিশ্চয় একদিন এর জবাবদিহিতা করতে হবে যে আমি তোমাকে এত ক্ষমতাশীল বানিয়েছিলাম কিন্তু তুমি নিরীহ মুসলমানদের নির্যাতনে চুপ ছিলে কেন?
_________________________!!!
সপ্তাহজুড়ে আল আকসা মসজিদে চলমান ইসরাইলি আগ্রাসন থেকে পিছু হটছে দেশটি। জাতিসংঘ, বিভিন্ন মুসলিম দেশসহ আন্তর্জাতিক মহলের চাপ-ই তাদের পিছু হটার কারণ। খবর ইসরাইলি টেলিভিশন চ্যানেল ২ এর।
খবরে বলা হয়, আন্তর্জাতিক মহলের চাপে ফিলিস্তিনিদের দাবি বিবেচনার জন্য শনিবার রাতে আলোচনায় বসে ইসরাইল কর্তৃপক্ষ।
আলোচনায় মসজিদ প্রাঙ্গণে বসানো মেটাল ডিটেক্টর সরিয়ে নেয়ার সিদ্ধান্ত হয়। তবে স্থায়ী মেটাল ডিটেক্টরের পরিবর্তে এখন থেকে সেখানে হাতে বহনযোগ্য ডিটেক্টর ব্যবহার করা হবে।
ইসরাইলি কর্তৃপক্ষ চ্যানেল ২ কে বিষয়টি নিশ্চিত করেছে।জেরুজালেম পুলিশ প্রধান ইয়োরাম হেলেভি ও মেয়র নির বেরেকাট এ সিদ্ধান্তে সমর্থন জানিয়েছেন।
আল আকসা মসজিদ প্রাঙ্গণে তিন ইসরাইলি পুলিশ নিহত হবার জের ধরে প্রায় ১০ দিন ধরে সেখানে আগ্রাসন চালায় ইসরাইল। গত দুই সপ্তাহ সেখানে জুমার নামাজ আদায় করতে দেয়া হয়নি।
এ নিয়ে ফিলিস্তিনি প্রতিবাদী জনতার সঙ্গে ইসরাইলি বাহিনীর সংঘর্ষে এ পর্যন্ত পাঁচজন ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন।
ইসরাইলের এ অবস্থানের কারণে জাতিসংঘ, বিভিন্ন মুসলিম দেশ ও আন্তর্জাতিক মহল থেকে ইসরাইলের উপর তীব্র চাপ সৃষ্টি করা হয়।